বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভালো ফলাফলের জন্য খুশি হবেন কী, কোথায় ভর্তি হবেন সেই অনিশ্চয়তার জন্য অস্থির থাকেন সব সময়। জীবন তাঁকে কোথায় নিয়ে দাঁড় করাবে, সেই দুশ্চিন্তায় যেন ভালো ফলাফলের আনন্দ উদ্‌যাপন করতেও ভুলে গিয়েছিল জয়ন্ত। সেই সময়ে প্রথম আলোর রংপুর প্রতিনিধি জয়ন্তর বাস্তবতা ও তাঁর ভালো ফলাফল নিয়ে প্রতিবেদন করেন। সেই প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই জয়ন্ত ব্র্যাক ব্যাংক-প্রথম আলো ট্রাস্ট অদম্য মেধাবী শিক্ষাবৃত্তির জন্য নির্বাচিত হন। ব্র্যাক ব্যাংক-প্রথম আলো ট্রাস্ট অদম্য মেধাবী শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে উচ্চমাধ্যমিক পড়তে শুরু করেন।

জয়ন্ত বলেন, 'এই শিক্ষাবৃত্তি পাওয়ার পর আমাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। আর্থিকভাবেই হোক আর সামাজিক ভাবেই হোক প্রথম আলো ট্রাস্ট সব সময় আমার পাশে ছিল, এখনো আছে। শুধু অর্থনৈতিকভাবেই না, একজন ভালো মানুষ হিসেবে পরিবারের পাশে দাঁড়াতে চাইলে কিভাবে নিজেকে তৈরি করে নিতে হবে, সেই বিষয়গুলো এখান থেকে শিখেছি। আমাদের দক্ষতা উন্নয়নের জন্য সব সময় আমাদের পাশে থেকেছে।'

জয়ন্ত রায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিজ্ঞানে ভর্তি হয়ে ২০১৪ সালে অনার্স ও ২০১৫ সালে মাস্টার্স শেষ করেন। সব প্রতিকূলতা অতিক্রম করে তিনি এখন বাংলাদেশ পুলিশের উপপরিদর্শক (নিরস্ত্র) হিসেবে কর্মরত। জয়ন্ত বলেন, ‘যেই পেশাতেই থাকি না কেন, সারা জীবন মানুষের সঙ্গে, মানুষের পাশে থেকে, মানুষের জন্য কাজ করে যাব।’

অদম্য মেধাবী তহবিল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন