প্রিয়াঙ্কা খানম আরও  বলেন, ক্লাসে শিশুদের কবিতা আবৃত্তির শেখানো হয়৷ শিশুদের ইচ্ছে মতো যেকোনো কবিতা আবৃত্তি করতে দেওয়া হয়৷ তাদের স্কুলের পাঠ্য বইয়ের কবিতা থেকে আবৃত্তি করতে দেওয়া হয়৷ শিশুরা কবিতা আবৃত্তির সময় উচ্চারণে যেসব ভুল করে থাকে সেগুলোর সঠিক উচ্চারণ শিখিয়ে দেওয়া হয়৷

শিশু-বিকাশ কেন্দ্রের শিক্ষার্থী জুলেখা জানায়, ‘আমাদের সঠিক উচ্চারণ শিখিয়ে দেওয়া হয়৷ এটা আমাদের ভালো লাগে৷’

দড়ি হাইরমারা স্কুলে বিভিন্ন ক্লাসে পড়াশোনার পাশাপাশি আবৃত্তি শেখে মুন্নি, সাদিকা, ইনা, নন্দিনী, তিথি, জুলেখা, বৈশাখী, শুভা, আনহা, ঐশী, চাঁদনি, ফাহিমা, এশা, রোবাইয়া আরও অনেকে।

সাদত স্মৃতি পল্লী প্রকল্পের কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন জানালেন, ‘শিশুদের সুস্থ ও মানসিক বিকাশের জন্য ধর্মীয় শিক্ষা, বাংলার সংস্কৃতি, সাংস্কৃতিক ও প্রযুক্তি বিষয়ক শিক্ষা প্রদান করা হয় এখানে। নিয়মিতভাবে ক্লাসগুলো পরিচালনা করা হয়।’

সাদত স্মৃতি পল্লী প্রকল্পটি এনভয় গ্রুপের চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন আহমেদের ব্যক্তিগত আর্থিক সহযোগিতায় পরিচালনা করে প্রথম আলো ট্রাস্ট৷