বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নতুন কম্বল পেয়ে কেমন লাগছে এমন প্রশ্নে জবাবে তামিম বলে, ‘আমি খুপ খুশি হইচি। আমার বন্ধুরাও খুশি হয়েচে।বাড়ি গেলি আমাগের আব্বা-মা আরু খুশি হবেনে।’

গত বুধবার বিকেলে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ভালাইপুর দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আমির হোসেন বলেন, ‘প্রথম আলো ট্রাস্ট শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে যে মহৎ কাজটি করে চলেছে তা বহুদিন দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।’

চুয়াডাঙ্গা জেলা সম্মিলিত ওলামা কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মাওলানা বশির আহমদ প্রথম আলোর কম্বল বিতরণের এই উদ্যোগকে সময়োপযোগী বলে মন্তব্য করেন।

কম্বল বিতরণকালে অন্যান্যের মধ্যে প্রথম আলোর চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি শাহ আলম, প্রথম আলো বন্ধুসভার সহসভাপতি মোহাইমেনুল ইসলাম সাতিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ আল আরাফাত, সমাজকল্যাণ সম্পাদক সাইদুর রহমান, সদস্য মাহবুবুল আলম রিফাত, সাদিয়া সুলতানা সুরাইয়া, রনিতা ইসলাম ও শওকত আলী এবং ভালাইপুর দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা শান্তি ও ভালাইপুর হামিরন নেসা আল-কুরআন আদর্শ ক্বওমী মাদ্রাসার শিক্ষাসচিব জহিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

ত্রাণ তহবিল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন