বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানায় ছাব্বিরের বাড়ি । ছয় মাস বয়সে তার বাবা মারা যান। মা ছিলেন গৃহিনী। নিজেদের জমিজমা বলতে কিছুই নেই। নানার বাড়িতে থেকে ২০১০ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন। এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। বৃত্তির জন্য আবেদন করেন প্রথম আলো ট্রাস্টে। পরে তাঁর পারিবারিক অবস্থা ও অদম্য মেধাকে বিবেচনায় নিয়ে ব্র্যাক ব্যাংক-প্রথম আলো ট্রাস্ট অদম্য মেধাবী শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়। ২০১২ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। পুনরায় বৃত্তি অব্যাহত থাকে। পরে ভালো করে পড়াশোনা করে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পান।

ছাব্বির আহমেদ জানান, ব্র্যাক ব্যাংক-প্রথম আলো ট্রাস্টের বৃত্তির টাকায় পড়াশোনা করেছি। এখন চাকরির চেষ্টা করছি। মানুষের ভালোবাসা আমি পেয়েছি। ইচ্ছে আছে চাকরি পেলে আমার মতো অদম্য যারা আছে, তাদের পড়াশোনা করাব।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন