দেশলাই-সিগারেট যেখানে থাকে, সেসব জায়গায় পারতপক্ষে না যাওয়া। যারা ধূমপান করে তাদের সঙ্গ এড়িয়ে চলা। কোথাও ধূমপান করতে দেখলে সেখানে না যাওয়া। মানসিক ইচ্ছে তৈরি হলে নিজেকে কোনো না কোনো কাজের সঙ্গে যুক্ত করা। বেশি ভালো হয় বিনোদনমূলক কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারলে। নিজের চেষ্টায় একান্তই না পারলে কিছু ওষুধের সহযোগিতা নেওয়া যেতে পারে। যেমন নিকোটিন গাম, নিকোটিন লজেন্স, নিকোটিন প্যাঁচ (চামড়ার ওপর লাগানো হয়) ইত্যাদি। এ ছাড়া তেঁতুলের চকলেট, পোলো, দারুচিনি এগুলো জিহ্বায় রাখা যেতে পারে। একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ গ্রহণ করা যেতে পারে। এভাবে একজন মানুষ খুব সহজেই নিজেকে ধূমপানমুক্ত করতে পারেন।

মাদকবিরোধী আন্দোলন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন