বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

আনুশকার কাছে জানতে চাই, আপনার হাতে ইয়াবা আসত কীভাবে? তিনি বলেন, ‘তারা বাসায় এসে দিয়ে যেত। একদম হোম সার্ভিস। ধরেন, কোনো সিডির প্যাকেটে বা খাতার ভাঁজে করে দিয়ে যেত। শেষ দিকে তো আমি বাসাতেই ইয়াবা নিতাম। তারা বন্ধু সেজে আমার বাসায় এসে দিয়ে যেত।’

তিনি আরও জানান, ‘মা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেখে প্রথম আলো ট্রাস্টের মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা অনুষ্ঠানে যাওয়া শুরু করেন। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ শুনতেন। সেই পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে অনেকটা সুস্থ হই। পরে, সবকিছু বাদ দেওয়ার পরও আমি আবার স্লিপ করেছিলাম। এক মাসের মাথায় মা-বাবা বুঝতে পারেন। তারপর সোজা মাদক নিরাময়কেন্দ্র পাঠিয়ে দেন। সুস্থ হলাম। সেই থেকে ভালো আছি, মাদক ছেড়ে দিয়েছি।’

রাজধানীর ধানমন্ডি ডব্লিউভিএ মিলনায়তনে প্রতি মাসে আয়োজন করা হয় মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তার। এই অনুষ্ঠানটি দুটো ভাগে বিভক্ত। একটি হলো রোগীর সঙ্গে চিকিৎসকের একান্ত কথাবার্তা ও চিকিৎসাসেবা গ্রহণ। আর দ্বিতীয়টি হলো নাম পরিচয় প্রকাশ না করে মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের মতামত ও আলোচনা। যদিও করোনা পরিস্থিতির কারণে মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা সভা সাময়িকভাবে বন্ধ আছে।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন