সকাল ১০টায় বাংলাদেশ ইকো অ্যাডভেঞ্চার দলের তত্ত্বাবধানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ভ্রমণে আসেন বেলজিয়াম ও নেদারল্যান্ডসের দুটি পর্যটক দল। প্রথমেই তাঁরা চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দূরে আলোর পাঠশালা ও কোল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার গ্রাম বাবুডাইং ঘুরতে আসেন। এ সময় তাঁদের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন দলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফ্রিদি। পর্যটকদের মধ্যে ছিলেন বেলজিয়ামের নাগরিক রিচার্ড, নেদারল্যান্ডসের নাগরিক লেলে, দম্পতি বার্ট ও জেমি। তাঁরা সকলেই ছিলেন উৎফুল্ল মনের অধিকারী।

গ্রাম ঘুরে আলোর পাঠশালায় পৌঁছালে শিক্ষার্থীরা তাঁদের ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে বরণ করে নেয়। এ সময় সকলকে শাপলা ফুলের মালা দেওয়া হয়। বেলা সোয়া ১১টায় অ্যাসেম্বলিতে অংশ নেয় শিক্ষার্থীরা। জাতীয় সংগীতের পর শিক্ষার্থীরা অতিথিদের আটটি পিটি দেখায়। তা দেখে মুগ্ধ হন অতিথিরা। এরপর শ্রেণিকক্ষগুলোতে গিয়ে পাঠদান দেখেন তাঁরা। পরে কোল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার শিক্ষার্থীরা তাঁদের সামনে ঐতিহ্যবাহী নাচ-গান পরিবেশন করে।

বেলজিয়াম নাগরিক রিচার্ড পিতাহীন তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী জীবন টুডুর জীবনসংগ্রামের গল্প শুনে বলেন, ‘এত ছোট বয়সেই সংসারে অর্থের জোগান দেওয়ার বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। সে এই বয়স থেকেই পড়ালেখার পাশাপাশি অর্থ উপার্জন করে সংসার পরিচালনায় যে ভূমিকা রেখেছে তা আমাদের কাছে অকল্পনীয়। আমরা তার উন্নত ভবিষ্যৎ কামনা করি।’