default-image

মাদক থেকে দূরে থাকতে অবশ্যই ধূমপানের অভ্যাস ছাড়তে হবে। প্রথম আলো ট্রাস্টের মাদকবিরোধী পরামর্শ সভায় এই পরামর্শ দিয়েছেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক আহমেদ হেলাল। তিনি বলেন, সিগারেটও মাদক। অন্যান্য মাদকের প্রবেশদ্বার সিগারেট। তাই আস্তে আস্তে নয়, একবারেই ছাড়তে হবে সিগারেট।

গতকাল সোমবার বিকেল চারটা থেকে আধা ঘণ্টা প্রথম আলোর ফেসবুক পেজে মাদকবিরোধী অনলাইন পরামর্শ সহায়তা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনলাইনে মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা সভার এটি ছিল তৃতীয় আয়োজন। এ নিয়ে প্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে ২০০৩ সাল থেকে ১১৮টি মাদকবিরোধী পরামর্শ সভা হয়েছে। এর মধ্যে করোনার সংক্রমণের কারণে শেষ তিনটি সভা হয়েছে অনলাইনে। গতকালের সভাটি অনলাইনে দেখেছেন ৪৪ হাজার মানুষ।

বিজ্ঞাপন

গতকালের সভা সঞ্চালনা করেন প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আনিসুল হক। সভায় অংশ নেওয়া ব্যক্তিরা মাদক ছাড়াও করোনাকালে নানা মানসিক সমস্যা নিয়েও পরামর্শ চান।

পরামর্শ সভায় বলা হয়, অনেক মাদকাসক্ত ব্যক্তির পরিবার মনে করে নিরাময় প্রক্রিয়া শেষ হওয়া মানে সব শেষ। আসলে তা নয়। এখান থেকেই মূলত সুস্থ হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু। নিরাময়কেন্দ্র থেকে ফিরে আসা ব্যক্তির প্রতি পরিবারের সদস্যদের সহানুভূতিশীল হতে হবে। সহায়তা ও ভালোবাসা দিয়ে মাদকাসক্তি থেকে কাউকে মুক্ত করা সম্ভব।

চিকিৎসক আহমেদ হেলাল, কৌতূহল থেকে, সঙ্গদোষে, হতাশা থেকে অথবা নিজেকে স্মার্ট দেখাতে গিয়েও অনেক মানুষ মাদকে আসক্ত হয়ে পড়ে। এই সমস্যা কাটিয়ে উঠতে নিজের ইচ্ছাশক্তি যেমন দরকার, তেমনি পরিবারেরও সহযোগিতা প্রয়োজন।

মন্তব্য পড়ুন 0