ভোলায় অ্যাসিড সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

বিজ্ঞাপন
default-image

অ্যাসিড সন্ত্রাসের ঘটনায় সম্পৃক্ত অপরাধীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা, অ্যাসিড আক্রান্তদের উন্নত চিকিৎসা ও অ্যাসিড প্রাপ্তির উৎস খুঁজে বের করার দাবিতে ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে বিশাল মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা হয়েছে। একই দাবিতে জেলার মাসিক আইন-শৃঙ্খলা সভায় বক্তারা সোচ্চার হয়ে উঠেছেন।

প্রথম আলো ট্রাস্ট ভোলা বন্ধুসভা গত ১৭ মে বৃহস্পতিবার ১১টায় মানববন্ধনের আয়োজন করেছে ১২টায় হয়েছে আইনশৃঙ্খলা সভা 
ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নে খুশিয়া গ্রামের রাঢ়ি বাড়িতে গত সোমবার (১৪মে) দিবাগত রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় মো. হেলাল রাঢ়ির মেয়ে তানজিম আক্তার মালা (১৬) মোসা. মারজিয়ার () শরীরে দুর্বৃত্তরা অ্যাসিড ছুড়ে পালিয়ে যায় ঘটনায় শিশুদের মা জান্নাতুল ফেরদৌসী বাদী হয়ে ভোলা সদর থানায় মামলা করেন পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সন্দেহ জনক ভাবে দুজনকে আটক করে পরে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয় গ্রেপ্তার হওয়া আসামির নাম মো. ইউসুফ(২৩) তাঁকে আদালতে চালান করার পরে জেল-হাজতে পাঠানো হয় 
শিশুদের মা জান্নাতুল ফেরদৌসী বলেন, অ্যাসিডে তিনি তার দুই মেয়ে ঝলসে গেছেন সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তানজিম আক্তার মালা তার মুখমণ্ডল, দুই চোখসহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ঝলসে গেছে তাঁদের চিকিৎসার জন্য ব্র্যাক ঢাকায় এনেছে
তিনি আরও বলেন, তাঁর স্বামী দিনমজুর, চট্টগ্রামে রঙের কাজ করে এই অ্যাসিড আক্রান্তদের উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার সামর্থ্য তাঁদের নেই  তাঁরা আক্রান্তদের উন্নত চিকিৎসা প্রকৃত আসামিদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার দাবি করেন
গত বৃহস্পতিবার একই দাবিতে ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন প্রতিবাদ করে প্রথম আলো ট্রাস্ট ও বন্ধুসভা সময় বক্তব্য রাখেন সচেতন নাগরিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. সফিকুল ইসলাম, ভোলা স্বার্থরক্ষা কমিটির সদস্যসচিব অমিতাভ অপু, নাগরিক কমিটির সদস্যসচিব এসএম বাহাউদ্দিন, কোস্টট্রাস্টের সমন্বয়কারী জহিরুল ইসলাম, প্রথম আলো বন্ধুসভার সভাপতি মামুনুর রশিদ প্রমূখ
বক্তারা বলেন, ভোলার আইন -শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খারাপ পর্যায়ে পৌছাচ্ছে প্রতিদিন খুন, চুরি. ছিনতাই. ডাকাতি, আত্মহত্যা হচ্ছে গত কয়েক বছর ভোলায় অ্যাসিড সন্ত্রাস হয়নি আবার তা শুরু হয়েছে ভোলায় চারপাশের নদী পথ দিয়ে মাদক আসছে মাদক মুঠোফোন ব্যবহারের কারণে শিশু-কিশোর অপরাধ বাড়ছে এসব অপরাধের কারণে ইভটিজিং,বাল্যবিবাহ, চুরি-ছিনতাই খুন অ্যাসিড সন্ত্রাস বাড়ছে স্বর্ণকার লাইসেন্স না করে অ্যাসিড ব্যবহার করছে ফলে অ্যাসিড সহজলভ্য হচ্ছে
ওই দিন ১২টায় জেলা প্রশাসক মিলনায়তনে মাসিক আইনশৃংখলা  সভায় একই বক্তব্য দেন ভোলার সুশীল-সমাজ তাঁরা ভোলার আইন-শৃঙ্খলার অবনতিসহ অ্যাসিড সন্ত্রাস হওয়ায় আতঙ্ক প্রকাশ করেন   তাঁরা সকলে পুলিশ প্রশাসনকে দায়ী করেন
সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন বলেন, ভোলার শহরে, পথে-ঘাটে দিনে রাতে স্কুল-কলেজের ছাত্ররা আড্ডায় মেতে রয়েছে স্কুলছাত্রের হাতে মুঠোফোন এটা সমাজে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে অ্যাসিড সন্ত্রাস ঘটেছে প্রেমের কারণে একই কারণে ইভটিজিং বাল্যবিবাহ হচ্ছে
ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক আইন-শৃঙ্খলা সভায় সভাপতির বক্তব্যে বলেনঅ্যাসিড ভায়োলেন্স ভোলা বাসির জন্য একটি দুঃসংবাদ শিশুর শরীরে অ্যাসিড নিক্ষেপ এটা কোনোভাবে কাম্য নয় সারা দেশে এটা নিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে অ্যাসিড কোত্থেকে পেল, কীভাবে পেল, কারা সরবরাহ করেছে এটা খুঁজে বের করার জন্য অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছি দ্রুত তদন্ত প্রতিবেদন দেবেন যাঁরা অ্যাসিড ব্যবহার করেন তাঁদের সকলের লাইসেন্স আছে কিনা, সেটি খুঁজে বের করতে হবে
পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন বলেন, এপ্রিল মাসে মাদকের মামলা বেড়েছে, অন্য মামলা কমেছে বেড়েছে ডোমেস্টিক ভায়োলেন্স অপরাধ সংগঠিত হওয়ার সঙ্গে  অপরাধী গ্রেপ্তার হচ্ছে পুলিশ কঠোর পরিশ্রম করছে অ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের গ্রেপ্তারের জন্য বহুমুখী গোয়েন্দা নিয়োগ করা আছে তদন্তের স্বার্থে বলা যাবে না

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন