default-image

প্রথম আলো ট্রাস্ট পরিচালিত প্রথম আলো চর আলোর পাঠশালায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। করোনার সময়ে প্রথম আলো চর আলোর পাঠশালার উদ্যোগে ও চরের মহিলা সংগঠক লায়লা বেগমের নেতৃত্বে চরের বাসিন্দাদের দরজি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চালু করা হয়। চলমান দরজি প্রশিক্ষণ গ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা প্রত্যেকে নিজ হাতে পতাকা তৈরি করেন । নিজেদের বানানো পতাকা মিছিল নিয়ে ছুটে আসেন বিদ্যালয়ে। সেসময় সবুজ প্রকৃতির সঙ্গে মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় লাল সবুজের পতাকা। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রথম আলো চর আলোর পাঠশালা বিশেষ মর্যাদায় পালন করা হয় দিনটি।

বিজ্ঞাপন
default-image

আলোচনা সভার শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। ৩০ লাখ শহীদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এ সময় সঠিক মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য উদ্দীপ্ত করতে বক্তব্য রাখেন প্রথম আলো চর আলোর পাঠশালার প্রধান শিক্ষক মো. আতাউর রহমান। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তিযুদ্ধের ভূমিকা নিয়ে বক্তব্য রাখেন উক্ত বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল কাদের।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব শতবর্ষের উপর দিক নির্দেশনা মূলক আরও বক্তব্য রাখেন সহকারী শিক্ষক মো. মামুন-উর-রশিদ, মো. হাসান রানা, শ্রী. যুধিষ্ঠির চন্দ্র দাস। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সহকারী শিক্ষক মো.মাইদুল ইসলাম মেহেদী। আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন উক্ত প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জনাব ফজলার রহমান। তিনি বলেন এরকম দূর্গম অঞ্চলে স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী পালন করতে পারছি এইটা ভাগ্যের ব্যাপার। আমারা শোষিত হয়েছি, বঞ্চিত হয়েছি কিন্তু আজ আমরা মুক্ত পাখির মতো স্বাধীন। ২৬শে মার্চের গুরুত্ব বিষয়ক আলোচনার মধ্যদিয়ে তিনি অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

বিজ্ঞাপন
প্রথম আলো ট্রাস্ট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন