বিজ্ঞাপন
default-image

অভিভাবক জুবাইদা আখতার বলেন, করোনাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের পরিবারের মধ্যে তিন দফায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এলাকার শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পথ সুগম করে দেওয়ার পাশাপাশি বিনা বেতনে লেখাপড়ার সুযোগ করে দিয়েছে প্রথম আলো ট্রাস্ট ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন-স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফরিদুল আলম, প্রথম আলোর টেকনাফ প্রতিনিধি গিয়াস উদ্দিন, তাজাউল আহমদ, সাংবাদিক আমান উল্লাহ কবির, স্কুলের দাতা সদস্য বনি আমিনের ছেলে মোহাম্মদ ইউনুস, মোহাম্মদ আয়ুব, স্কুলের প্রধান শিক্ষক বাবুল ইসলামসহ অভিভাবকরা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সহকারী শিক্ষক সৈয়দ নুর।

আলোর পাঠশালার প্রধান শিক্ষক বাবুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ রুটিন তৈরি করে শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পড়া বুঝিয়ে দিয়ে আসছেন। এতে শিক্ষার্থীদের সাথে শিক্ষকের যোগাযোগ বাড়ছে। আবার শিক্ষার্থীরা তাদের বাড়িতে বসে বিষয়ভিত্তিক সমস্যার সমাধান করতে পারছে।

স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফরিদুল আলম জানান, ‘ছেলেরা পড়াশোনা বাদ দিয়ে সেন্ট মার্টিনগামী পর্যটকদের মাল টানা বা কুলির কাজ করত। এখন তারা স্কুলমুখী হয়েছে।’

প্রথম আলো ট্রাস্ট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন