default-image

ভোরে মাছ ধরতে যান তাঁরা। সারা দিন মাছ ধরার পর বিক্রি। এরপর বাজার করে খালের ভাসমান জেলেপল্লিতে ফিরতে ফিরতে সন্ধ্যা হয়ে যায়। রান্না শেষে খেয়েদেয়ে নৌকাতেই ঘুম। শীতের এই সময়ে কষ্টে আছেন এসব মানুষ।

ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নে মেঘনা নদী থেকে আসা কোড়ারহাট খালে গড়ে ওঠা ভাসমান এই জেলেপল্লির শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে প্রথম আলো ট্রাস্ট। গত মঙ্গলবার এখানকার ৮০ জন শীতার্ত মানুষকে দেওয়া হয়েছে রঙিন চাদর।

প্রায় ৮০টি নৌকায় এখানে বাস করেন কয়েক শ মানুষ। মঙ্গলবার বিকেলে ভোলা বন্ধুসভার সদস্যরা চাদর নিয়ে সেখানে হাজির হন। মাছ ধরা শেষে যিনি নৌকা নিয়ে আসছেন, তাঁর গায়ে জড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে চাদর। চাদর বিলি শেষ হতে সন্ধ্যা হয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

রঙিন চাদর পেয়ে হাসি ফোটে জেলেপল্লির বাসিন্দাদের মুখে। ‘এই পরথম কেউ এত সুন্দার এট্টা চাদর দিছে, শীতের মাইদ্যে পরিবার (স্ত্রী) পাইয়া খুশি অইব।’ বললেন জেলেপল্লির সরদার সানু মাঝি।

সুরমা বেগম নামের এক নারী বলেন, ‘কনকইন্যা শীতের মইদ্যে বাতাস এফোর দিয়া ডোহে, ওমিল দিয়া বাইরায়। নায়ে বোইয়া রাইনতাম পারি না। চাদরখান বড়ই সুন্দার, আল্লায় আমনেগোরে বাচাই রায়ুক!’

চাদর বিলি করার সময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য জাকির হোসেন। তিনি বলেন, এসব অসহায় নৌকাবাসীকে সহায়তা করায় প্রথম আলোকে ধন্যবাদ।

চাদর বিতরণের সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভোলার বেসরকারি সংস্থা আইসিডিএসের নির্বাহী পরিচালক মূর্তজা খালেদ, প্রথম আলোর ভোলা প্রতিনিধি নেয়ামতউল্যাহ, ভোলা বন্ধুসভার সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সহসভাপতি ইয়ারুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আরিয়ান আরিফ।

শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে আসতে পারেন আপনিও।

সহায়তা পাঠানো যাবে ব্যাংকের মাধ্যমে।

হিসাবের নাম: প্রথম আলো ট্রাস্ট/ত্রাণ তহবিল, হিসাব নম্বর: ২০৭ ২০০ ১১১৯৪

ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, কারওয়ান বাজার শাখা, ঢাকা।

বিজ্ঞাপন
প্রথম আলো ট্রাস্ট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন