বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শামীমার চিকিৎসার জন্য সংসারের অনেক টাকা খরচ হয়েছে। গরিব বাবার পক্ষে শিক্ষার খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হয়। সার্বিক দিক বিবেচনা করে অ্যাসিডদগ্ধ নারীদের জন্য প্রথম আলো সহায়তা তহবিল থেকে শামীমাকে শিক্ষাবৃত্তি দেওয়া হয়।

শিক্ষাবৃত্তি পেয়ে শামীমা আক্তার নজিপুর মহিলা কলেজ থেকে বিএসএস (পাস কোর্স) সম্মন্ন করছেন। এখন গাজীপুর ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ থেকে সমাজবিজ্ঞান বিভাগে মাস্টার্স শেষ বর্ষে ভর্তির প্রস্তুতি নিচ্ছেন। শামীমা আক্তার বলেন, ‘লেখাপড়া শিখে আমি নিজের পায়ে দাঁড়াতে চাই।’

অ্যাসিডদগ্ধ নারীদের জন্য সহায়ক তহবিল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন